Home লাইফ স্টাইল ঘন ঘন চাকরি বদল করা ভালো না খারাপ?

ঘন ঘন চাকরি বদল করা ভালো না খারাপ?

SHARE

কিছুদিন ছাড়া ছাড়া এক চাকরিতে অনেকেই হাঁফিয়ে ওঠেন৷ অগত্যা ফল চাকরি বদল করা৷ ফলে আবার করে জব সাইটগুলোতে লেগে যান কোথায় কী খালি রয়েছে, তা দেখতে৷আবার অনেকের এটা না পসন্দ, বছরের পর বছর হয়তো থেকে যান একই চাকরিতে৷বার বার চাকরি পাল্টানোর যেমন কিছু সুবিধে রয়েছে, তেমনই রয়েছে কিছু নেতিবাচক দিকও৷

পজিটিভ দিক
১) যারা এক কোম্পানি থেকে অন্য কোম্পানিতে ভালো সুযোগ পেলে চলে যান, তারা তাদের প্রতিভা ও সৃজনশীলতার পূর্ণ সদ্ব্যবহার করতে পারেন৷কারণ বিভিন্ন প্রোজেক্ট ও পরিস্থিতিতে কাজ করার ফলে নিজের জানাশোনার পরিধিটাও স্বাভাবিকভাবেই অনেকটা প্রসারিত হয়৷নেতৃত্ব দেওয়া, কাজের ব্যাপারে সূক্ষ্মাতিসূক্ষ্ম স্কিল সম্পর্কে এরা অনেক বেশি ওয়াকিবহাল হয়ে ওঠেন৷

২) অন্য কোম্পানিতে যাওয়া মানেই ধরে নেওয়া হয়, স্যালারি প্যাকেজ আগের থেকে একটু হলেও বেশি হবে৷ ফলে আর্থিক নিরাপত্তার ব্যাপারেও তারা থাকেন অনেক বেশি সুরক্ষিত৷ ভবিষ্যতের সঞ্চয়ও ভালোভাবে করতে পারেন৷ফলে জীবনধারণে আসে স্বাচ্ছন্দ্য৷

৩) বিভিন্ন ধরনের পরিবেশে কাজ করার অভিজ্ঞতা হয়৷এখনকার প্রতিযোগীতামূলক বাজারে এটা খুবই জরুরি৷ ফলে কোন কোম্পানিতে কর্মীদের কীভাবে দেখা হয়, মূল্যায়ন কীভাবে হয়, কী কী সুযোগ-সুবিধে পাওয়া যায় এবং সর্বোপরি কাজের পরিবেশই বা কেমন সে সম্পর্কে সম্যক ধারণা পাওয়া যায়৷যেমন কেউ যদি নন-প্রফিট সংস্থা থেকে ফর-প্রফিট সংস্থায় যান, তাহলে তারা লজিস্টিক ম্যানেজমেন্ট ও ফাইনানশিয়াল ম্যানেজমেন্টের বেশ কিছু গুরুত্বপুর্ণ বিষয় সম্পর্কে জানতে পারবেন৷

৪) পরপর অনেকগুলো চাকরি পাল্টাবার পর আপনি অবশেষে বুঝতে পারবেন, জীবনে ঠিক কী ধরনের কাজে আপনি ফোকাসড থাকতে চান৷

৫) বেশি অভিজ্ঞতা থাকলেই কেরিয়ারেও আপনি দ্রুত উন্নতি করতে পারবেন৷ মানে ভালো কোম্পানিতে অ্যাপ্লাই করা বা অফার করার ব্যাপারগুলো আপনার পক্ষে অনেক সহজ হয়ে যায়৷আর বায়োডাটায় এত কিছুর উল্লেখ থাকলে কোম্পানি কর্তৃপক্ষকে আপনি সহজেই আশ্বাস দিতে পারবেন, তাদের কোম্পানির জন্য আপনি কেন অপরিহার্য৷

নেগেটিভ দিক
১) বার বার চাকরি পাল্টানোর যেমন কিছু সুবিধে রয়েছে, তেমনই এটা আপনার বায়োডাটাতে ফেলতে পারে নেতিবাচক প্রভাব৷ প্রথমেই প্রশ্ন উঠবে আপনার বিশ্বাসযোগ্যতা নিয়ে৷ বার বার কোম্পানি পাল্টাচ্ছেন মানে, কর্মচারী হিসেবে আপনি খুব একটা আস্থা অর্জনের জায়গায় পৌঁছননি৷ এবং আপনার মধ্যে কোম্পানির প্রতি কোনও দায়বদ্ধতাও নেই৷

২) আপনার মধ্যে সন্তুষ্টির অভাব রয়েছে৷ আপনার কেরিয়ার নিয়ে আপনি মোটেও খুশি নন৷ তাই কোনও কোম্পানিতেই দীর্ঘদিন থাকতে পারছেন না৷ খালি মনে হয়, অন্য কোম্পানিত গেলেই হয়তো আপনি মনের মতো ওয়ার্ক প্রোফাইল পাবেন৷

৩) আপনি অত্যন্ত নিরাপত্তাহীনতায় ভোগেন৷ পাশাপাশি সিদ্ধান্ত নিতেও আপনি দৃঢ়বদ্ধ নন৷আর এর অর্থ কেরিয়ারে আপনার কমিটমেন্টও কম৷

৪) বার বার চাকরি বদলানো আপনার পক্ষে খুবই মানসিক চাপের৷ কারণ প্রতিবার চাকরি খোঁজা বা চাকরির পরিবেশ পাল্টানোর মতো ব্যাপারগুলোর সঙ্গে অনেকেই মানিয়ে নিতে পারে না৷ যার প্রভাব পড়তে পারে কাজেও৷এরকম পরিস্থিতি তৈরি হলে বা যদি কোনওভাবেই নিজের মনের মতো চাকরি খুঁজে না পান, তাহলে আপাতত চাকরির চেষ্টা না করাই ভালো৷

৫) বার বার চাকরি বদলালে বায়োডাটাতে রেফারেন্স দেওয়ার মতো কাউকে খুঁজে পাওয়া যায় না৷

৬) কেন আপনি এতগুলো চাকরি ছেড়েছেন, সে সম্পর্কে ই্টারভিউ বোর্ডে ঠিকমতো উত্তর দিতে না পারলে, প্রশ্নকর্তাদের মনে আপনার সম্পর্কে তৈরি হবে নেগেটিভ ইম্প্রেশন৷