Home লাইফ স্টাইল আপনার সন্তান শুনতে পাচ্ছে কী না জানেন?

আপনার সন্তান শুনতে পাচ্ছে কী না জানেন?

SHARE

রতিটি শব্দের পিছনে থাকে একটি করে গল্প/ প্রতিটি গল্পের পিছনে থাকে একটি করে জীবন৷কিন্তু ওদের জীবন হল শব্দ ছাড়া৷ চোখের সামনে সবকিছু প্রত্যক্ষ করতে পারলেও বলতে পারে না ওরা৷ কারণ সেই আওয়াজ পৌঁছায় না ওদের কান পর্যন্ত৷ তাই চাইলেও প্রত্যুত্তর দিতে পারে না ছোট ছোট প্রাণ গুলো৷

এখন প্রশ্ন, কানে শুনতে না পাওয়ার বা কম শুনতে পাওয়ার প্রধান কারণ কী?
উত্তর, ককলিয়া৷ শহরের খ্যাতনামা ইএনটি তথা পূর্ব ভারতের প্রসিদ্ধ ককলিয়া প্রতিস্থাপন চিকিৎসক বীরেন রায়চৌধুরী জানিয়েছেন, মূলত মানুষের অন্তঃকর্ণে ককলিয়ার সমস্যা থাকলেই কানে কম শুনতে পান মানুষ৷ অনেক ক্ষেত্রেই শিশু বয়স থেকেই এই সমস্যা দেখা যায় বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা৷

কী এই ককলিয়া?
চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, মানুষের অন্তঃকর্ণে অবস্থিত একটি ক্ষুদ্র অঙ্গ ককলিয়া৷ যার কাজ, বাইরের শব্দকে গ্রহণ করে নার্ভের মাধ্যমে তরঙ্গ রূপে তা মস্তিষ্কে প্রেরণ করা৷ মূলত এর মাধ্যমেই শুনতে পাই আমরা৷ আবার এই ককলিয়া অকেজো হলেই সবচেয়ে বড় অসুবিধার সম্মুখিন হতে হয় আমাদের৷ তবে এখন কিছুটা হয়ত নিশ্চিন্ত হওয়া যেতে পারে৷ শিশুদের ‘শাপ মোচন’ করতে এগিয়ে এসেছেন একদল চিকিৎসক৷ ককলিয়া প্রতিস্থাপনে সচেতনতা গড়ে তুলতে শহরের নামী হোটেলে একদিনের সচেতনতা শিবিরও করে ফেললেন তারা৷ মূল উদ্যোক্তা সংস্থা ডেসিবেল হিয়ারিং ক্লিনিক৷

সেখানে নিজেদের অভিজ্ঞতা ভাগ করে নিলো বেশকিছু পরিবার৷ চিকিৎসা ও অপারেশনের বিপুল খরচ চালাতে তাদের অসুবিধার কথাও জানিয়েছেন অনেকে৷ তবে চিকিৎসকদের পক্ষ থেকে মিলেছে ইতিবাচক আশ্বাস৷ তাঁরা জানিয়েছেন, প্রতি সপ্তাহের বুধবার গোলপার্ক রামকৃষ্ণ মিশনে বিনামূল্যে ককলিয়া পরীক্ষা করবেন তারা৷ চিকিৎসা চালাতে অপারগ রোগীদের জন্য ব্যবস্থা করা হবে জিরো ইন্টারেস্টে লোনের৷