Home পাহাড়িকা বান্দরবান জেলা স্টেডিয়ামের নামকরণ হচ্ছে ইউ.কে.চিং বীর বিক্রমের নামে

বান্দরবান জেলা স্টেডিয়ামের নামকরণ হচ্ছে ইউ.কে.চিং বীর বিক্রমের নামে

SHARE

বান্দরবানের বীর মুক্তিযোদ্ধা প্রয়াত ইউ.কে. চিং বীর বিক্রম-এর নামেই নামকরণ হতে যাচ্ছে জেলা স্টেডিয়ামের। পার্বত্য প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং জেলা ক্রীড়া সংস্থার কর্মকর্তাদের কাছে এরকম প্রস্তাব রেখেছেন। ৮ ডিসেম্বর শুক্রবার জেলা শহরে অরুণ সারকী টাউন হলের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এই সুপারিশ করেন।

এর আগে তিনি পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের অর্থায়নে নির্মিত অরুণ সারকী টাউন হলের উদ্বোধন করেন। প্রায় ৭ কোটি ৩২ লাখ টাকা ব্যয়ে এই হলটি নির্মাণ করা হয়েছে। এছাড়া জেলা পরিষদের অর্থায়নে বিভিন্ন সংগঠনকে সাংস্কৃতিক সরঞ্জামও বিতরণ করা হয়। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ক্য শৈ হ্লা। বিশেষ অতিথি ছিলেন জেলা প্রশাসক দিলীপ কুমার বণিক, পুলিশ সুপার সঞ্জিত কুমার রায় ও পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য তিং তিং ম্যা।

উল্লেখ্য ইউ. কে. চিং মারমা বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধের একমাত্র আদিবাসী বীর বিক্রম খেতাব প্রাপ্ত বীর মুক্তিযোদ্ধা। স্বাধীনতা যুদ্ধে তাঁর সাহসিকতার জন্য বাংলাদেশ সরকার তাঁকে বীর বিক্রম খেতাব প্রদান করে।

ইউ. কে. চিং ব্রিটিশ ভারতের পার্বত্য চট্টগ্রামের বান্দরবান মহুকুমার উজানী পাড়ায় ১৯৩৩ সালে জন্মগ্রহন করেন। তার পিতার নাম বাইশাউ মারমা।

ইপিআর-এর একজন সদস্য হিসাবে তিনি বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধে ৬ নং সেক্টরে যুদ্ধ করেন। উক্য চিং ১৯৫২ সালে ইষ্ট পাকিস্তান রাইফেলস্‌ (ইপিআর)-এ যোগ দেন এবং ১৯৭১ সালের ২৫ মার্চ নায়েক হিসেবে রংপুর জেলার হাতিবান্ধা বিওপিতে কর্মরত ছিলেন। তিনি সেই বিওপিতে কর্মরত ১ বিহারি কর্মকর্তা ও ২ পাঞ্জাবি সৈন্যকে হত্যা করে ফাঁড়ির অবশিষ্ট ৯ বাঙালি ইপিআর সৈনিককে নিয়ে যুদ্ধে যোগ দেন।