Home প্রিয় চট্টগ্রাম যুগে যুগে অম্লান হয়ে থাকবেন শহীদ নূতন চন্দ্র সিংহ

যুগে যুগে অম্লান হয়ে থাকবেন শহীদ নূতন চন্দ্র সিংহ

SHARE

শহীদ নূতন চন্দ্র সিংহয়ের ১১৭তম জন্মবার্ষিকীর আলোচনা সভায় বক্তারা বলেছেন, সারা দেশে পাক হানদার বাহিনীর বর্বরতা কথা শুনেও নূতন চন্দ্র সিংহ দেশ ছাড়েননি, এদেশের মাটি ও মানুষের প্রতি মমত্ববোধের কারণে মাটি কামড়ে ছিলেন। ঘাতকরা তাকে হত্যা করে মনে করেছিল এই মানবতাবাদীর নাম আর কর্মযজ্ঞের ইতিহাস মানুষের মন থেকে মুছে দিতে পারবে। তারা জাতির এই শ্রেষ্ঠ সন্তানকে নির্মমভাবে হত্যা করা হলেও তার নাম বাংলার মানুষের হৃদয়ে মুছে দিতে পারেনি। যুগে যুগে অম্লান হয়ে থাকবে এই মহান ব্যক্তির নাম আর রেখে যাওয়া সব প্রতিষ্ঠান।

বক্তারা বলেন, যারা সেদিন পাকহানাদার বাহিনীর সাথে ঘনিষ্ঠ যোগাযোগ রেখে এই হত্যাযজ্ঞ চালিয়েছিল তারাই ইতিহাসের আস্তাকুঁড়ে নিক্ষিপ্ত হয়েছে। গতকাল শুক্রবার রাউজানের কুণ্ডেশ্বরী বালিকা বিদ্যামন্দির মাঠে নূতন চন্দ্র সিংহ স্মৃতি সংসদ এই আলোচনা সভার আয়োজন করে। শিক্ষা ও মুক্তিযুদ্ধে বিশেষ অবদানের জন্য প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য সমাজবিজ্ঞানী ড. অনুপম সেনকে শহীদ নূতন চন্দ্র সিংহ স্মৃতি স্বর্ণপদক প্রদান করা হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন নূতন চন্দ্র সিংহ স্মৃতি সংসদের সহ–সভাপতি প্রফেসর ড. শংকর লাল সাহা। প্রধান অতিথি ছিলেন বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক অধ্যাপক শামসুজ্জমান খান। বিশেষ অতিথি ছিলেন–চবি বাংলা বিভাগের সভাপতি প্রফেসর ড. মহীবুল আজিজ, চবি মার্কেটিং বিভাগের সভাপতি সজীব কুমার ঘোষ, চট্টগ্রাম একাডেমির মহাপরিচালক জিন্নাহ চৌধুরী, চবি চারুকলা ইন্সটিটিউটের পরিচালক শায়লা শারমিন, বোয়ালখালী সিরাজুল ইসলাম ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ সমীর কান্তি দাশ, প্রাবন্ধিক রবিন ঘোষ প্রমূখ। স্বাগত বক্তব্য দেন– শহীদ নূতন চন্দ্র স্মৃতি সংসদের সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ সজল চৌধুরী। এর আগে শহীদ পুত্র লায়ন প্রফুল্ল রঞ্জন সিংহ অতিথিদের উত্তরীয় পরিয়ে দেন। অসুস্থতার জন্য ড. অনুপম সেন অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকতে পারেননি। তাঁর পক্ষে পদক গ্রহণ করেন আলী প্রয়াস। অতিথিদের সস্মাননা প্রদানকালে উপস্থিত ছিলেন শহীদ নূতন চন্দ্র সিংহয়ের দুই দৌহিত্র রাজিব সিংহ ও বাসু দেব সিংহ। আগুনের পরশমণি ছোঁয়াও প্রাণেণ্ডএই গানের সাথে শিক্ষার্থীদের নাচের মাধ্যমে আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের সূচনা করা হয়। পরে চাকমা নৃত্য, যাদু প্রদর্শনী ও অধ্যাপক লাকী দাশ একক রবীন্দ্র সংগীত পরিবেশন করেন।

সূত্রঃ দৈনিক আজাদী